আপনি পড়ছেন

ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরের জেনিন শরণার্থী শিবিরে ফের হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সেনারা। এতে দুই ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। অভিযানকালে ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে ইসরায়েলি সেনাদের সংঘর্ষ হয়েছে বলে জানা গেছে। এ নিয়ে টানা গত তিনদিনে আট ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে। খবর আল জাজিরা।

zenin israeli armyপশ্চিম তীরের জেনিন শরণার্থী শিবিরে ইসরায়েলি সেনাদের অভিযান

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) নিহতরা হলেন নাঈম জামাল আল-জুবাইদি এবং মোহাম্মদ আয়মান আল-সাদি। এছাড়া আহত হয়েছেন আরেকজন।

ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গ্রুপ ইসলামিক জিহাদ জানিয়েছে, নিহতরা তাদের আল-কুদস ব্রিগেডের জেনিন ব্যাটালিয়নের সদস্য।

আগের দিন বুধবার ইসরায়েলি বাহিনী জেনিনে অভিযানকালে এক ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করে।  ওই যুবকের নাম মোহাম্মদ তৌফিক বদরনেহ।

এর আগে মঙ্গলবার একদিনেই চার ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে ইসরায়েলি সেনারা।

ফিলিস্তিনের কর্মকর্তারা জানান, পশ্চিম তীরে এক ফিলিস্তিনি ব্যক্তির গাড়িচাপায় ইসরায়েলি এক নারী সেনা আহত হওয়ার পর ওই ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

 এছাড়া ইসরায়েলি সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হলে আরেক ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করে তারা। একইদিন রামাল্লার কাছে কফর ইন এলকায় ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে নিহত হয় দুই ভাই।

এদিকে এসব হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার জেনিনে ধর্মঘট পালন করেছে ফাতাহসহ অন্য ফিলিস্তিনি রাজনৈতিক দলগুলো।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, চলতি সপ্তাহে এসব মৃত্যুসহ এ বছর ইসরায়েলি সেনাদের হাতে মোট ২১০ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

সম্প্রতি ফিলিস্তিনি সশস্ত্র দলগুলো দখলকৃত পশ্চিমতীরের জেনিন ও নাবলুসে প্রতিরোধ গড়ে তোলায় ইসরায়েলি সেনারাও হামলা ও অভিযান বাড়িয়েছে। এতে প্রায় প্রতিদিনই ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে নিহত হচ্ছেন একাধিক ফিলিস্তিনি।

ইসরায়েলের সামরিক তথ্য অনুসারে, চলতি বছর ফিলিস্তিনিদের হামলায় ইসরায়েল ও পশ্চিম তীরে সেনাসহ ৩১ জন ইসরায়েলি নিহত হয়েছে।