advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্বের সবচেয়ে ঝাকজমকপূর্ণ শহর যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে পড়েছে করোনার থাবা। মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে সেখানে ২১ জনের দেহে পাওয়া গেছে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব। যার কারণে সেখানে জারি করা হয়েছে জরুরি অবস্থা। গতকাল শনিবার এ ঘোষণা দেন ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন কমিশনার ড. স্টিফেন হ্যান।

ny coronavirus

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে ভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে এ পর্যন্ত পাঁচ হাজার ৮৬১ জনের পরীক্ষা করা হয়েছে। ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৪০০ জনের শরীরে। আর এখন পর্যন্ত মারা গেছে ১৯ জন।

হ্যান আরো বলেন, নিউইয়র্কে মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ২১ জনের দেহে পাওয়া গেছে ভাইরাসটি। সেখানে এখন পর্যন্ত ৭৬ জনের দেহে ভাইরাসটির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। যার কারণে শহরে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

জানা যায়, এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যে এ ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। নিউইয়র্ক ছাড়াও ওয়াশিংটন, উতাহ, মেরিল্যান্ড, ক্যালিফোর্নিয়া, ফ্লোরিডা, ইন্ডিয়ানা ও কেন্টাকিতেও জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে চীনসহ সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৩৬ হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৬ হাজার ১৯৫ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৬০ হাজার ১৯০ জন। এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে ৪৩ হাজারের বেশি মানুষ।

চীনা গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, দেশটির মূল ভূখণ্ডে শনিবার পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৮০ হাজার ৬৯৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৯৭ জনের। ভাইরাসটি প্রথম শনাক্ত হওয়া হুবেই প্রদেশের উহানে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

এ পর্যন্ত বিশ্বের ১০৩টি দেশ ও অঞ্চলে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে। চীনের পর সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। দেশটিতে ৭ হাজার ১৩৪ আক্রান্ত এবং ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইউরোপের দেশ ইতালিতে। সেখানে ২৩৩ জনের মৃত্যু ও আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ৮৮৩ জন।

করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের দিক দিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ইরান। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ৮২৩ জন, মারা গেছে ১৪৫ জন। মৃতের মধ্যে দেশটির সাবেক দুই রাষ্ট্রদূত, সর্বোচ্চ নেতার শীর্ষ উপদেষ্টা এবং দুইজন সংসদ সদস্য রয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন এক উপমন্ত্রীসহ ২৩ এমপি।

sheikh mujib 2020