advertisement
আপনি দেখছেন

রাশিয়ার গবেষকরা বলছেন, করোনাভাইরাসে যারা মৃদুভাবে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের শরীরে কার্যকর ভূমিকা রাখে এইচআইভির প্রতিষেধক লোপিনাভির বা রিটোনাভির। তাই দেশটিতে যারা করোনাভাইরাসে তীব্রভাবে আক্রান্ত হননি তাদের এসব প্রতিষেধক দেয়া হচ্ছে। খবর ইয়ানি সাফাক।

hiv drugsএইচআইভির প্রতিষেধক

আজ বুধবার মস্কো সিটি হেলথ ডিপার্টমেন্ট তাদের ওয়েবসাইটে জানায়, বিশেষজ্ঞরা মৃদু করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের বাসায় এইচআইভির প্রতিষেধক লোপিনাভির অথবা রিটনাভির সেবন করার কথা উল্লেখ করেছেন। প্রতি ১২ ঘণ্টায় ৪০০এমজি/১০০এমজি লোপিনাভির অথবা রিটনাভির খেতে হবে ১৪ দিন। তাহলেই করোনা চলে যাবে।

রাশিয়ার সরকারি হিসাব অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে ৬৫৮ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৬৩ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ভাইরাসটির কারণে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

coronavirus picপ্রতীকী ছবি

বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের এইচআইভির প্রতিষেধক প্রদান করছেন চিকিৎসকরা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও মঙ্গলবার জানিয়েছে, তারা করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কারে চারটি ওষুধ নিয়ে কাজ করছে। যার মধ্যে দুটি এইচআইভির প্রতিষেধক।

তবে অন্যান্য গবেষণায় দেখা গেছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় যাদের অবস্থা বেশি খারাপ হয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে তেমন কোনো কাছ করছে না এইচআইভির জন্য ব্যবহৃত এই ওষুধ। বরং কিছু ক্ষেত্রে রোগীর অবস্থা আরো খারাপ হতে পারে। এ জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়েই এসব ওষুধ ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছেন সংশ্লিষ্টরা।