advertisement
আপনি দেখছেন

নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রতিষেধক বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদনে যাওয়ার পর সেটিকে বিশ্বের সকল মানুষের জন্য সহজলভ্য ও সাশ্রয়ী করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। গতকাল বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। খবর ইউএন নিউজ।

antonio guterres un 1জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস- ফাইল ছবি

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, করোনাভাইরাস মহামারি বিশ্বজুড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে। এখনো এর সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। শিগগিরই প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া মানুষের সংখ্যা ১০ লাখে পৌঁছে যাবে।

করোনাভাইরাসের একটি কার্যকর প্রতিষেধকের দিকে অনেকে তাকিয়ে আছেন উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, এটা পরিষ্কার যে, শুধু একটি ভ্যাকসিন কোভিড-১৯ মহামারিকে সমাধান করতে পারবে না। আমাদের এমন একটি টিকা আবিষ্কার করতে হবে- যা প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করে মানুষের জীবন বাঁচাবে। টিকাটি এমন হতে হবে যাতে এটি গ্রহণের পর অন্তত ১ বছর কেউ এতে আর আক্রান্ত না হয়।

corona vaccine 1করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক- প্রতীকী ছবি

করোনাভাইরাস কোনো সীমানা মানেনি উল্লেখ করে জাতিসংঘের প্রধান আরো বলেন, এ ভাইরাসটি খুবই অল্প সময়ের মধ্যে সারা বিশ্বের মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই এই ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে আবিষ্কৃত প্রতিষেধকটি সারাবিশ্বের জনগণের সম্পদ হিসেবে দেখতে হবে। ভ্যাকসিনের বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হলে এটি যাতে সকলের জন্য সহজলভ্য ও সাশ্রয়ী হয় সেটি দেখতে হবে। তবে এটি করতে যে অর্থায়নের প্রয়োজন হবে সেটির জন্য বিস্ময়কর পদক্ষেপ নিতে হবে।

অ্যান্তোনিও গুতেরেস আরো বলেন, শুধু একটি কার্যকর টিকা আবিষ্কার করলেই হবে না। বিশ্বের সবাইকে সেটি গ্রহণের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে। কিন্তু একটি বিশাল জনগোষ্ঠী ভ্যাকসিন গ্রহণে অনিচ্ছুক। কারণ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে থাকা ভ্যাকসিনগুলোর সম্পর্কে ভুল তথ্য ছাড়ানো হচ্ছে। যা মানুষের মাঝে এটি গ্রহণের দ্বিধা-দ্বন্দ্বকে আরো জোরালো করে তুলছে। তাই ভুল তথ্য প্রচার রোধে সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে।

sheikh mujib 2020