advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি ইরাকের রাজধানী বাগদাদে ইরানি শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে ‘গোপন বৈঠক’ করেছেন সৌদি আরবের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে এমন খবর দিয়েছিল আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।

saudi iran flag

পার্সটুডে জানায়, এবার সৌদি আরবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি স্বীকার করা হয়েছে। আঞ্চলিক উত্তেজনা প্রশমনে তেহরানের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছে রিয়াদ।

সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নীতি প্রণয়ন কর্মকর্তা রিদ কারিমলি বলেন, বৈঠকের খবর সত্য। তবে আলোচনার ফল স্পষ্ট নয়। এ নিয়ে নিশ্চিত করে এখনো কিছু বলা যাচ্ছে না।

এদিকে, সৌদি আরবের সঙ্গে গোপন আলোচনার খবর ইরানের পক্ষ থেকেও প্রত্যাখ্যান করা হয়নি। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে বলেন, তারা আলোচনাকে স্বাগত জানায়, যা উভয় দেশের জন্য কল্যাণকর।

saudi iran relation

এর আগে সম্প্রতি ইরানের সঙ্গে সুসম্পর্ক চান বলে জানিয়েছিলেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান। উভয় দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভালোভাবে বজায় রাখা সম্ভব হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এর কিছুদিন পরই দু’দেশের মধ্যকার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়, যা অঞ্চলিক স্থিতিশীলতার আভাস হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, বৈঠকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন, ইয়েমেন যুদ্ধ ও লেবানন ইস্যুসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যে আলোচনার মধ্যস্থতা করেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাজিমি। দুই দেশের মধ্যে এ ধরনের আলোচনা চলমান থাকবে বলে জানায় সূত্রগুলো।

গত পাঁচ বছর ধরে ইরান-সৌদির মধ্যকার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন রয়েছে। শিয়া ধর্মীয় নেতা শেখ নিমর আল নিমরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরকে কেন্দ্র করে দেশ দুটির মধ্যে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছিল।